একবছর পর কারাগার থেকে মুক্ত: ‌সুখের সংসার তছনছ বিএন‌পি‌ নেতা রিয়াজের!

অব‌শে‌ষে কারাগার থে‌কে মু‌ক্তি পে‌য়ে‌ছেন ঢাকার মিরপুর ৬ নং ওয়ার্ড জাসাস সভাপতি মো.রিয়াজ (৩৮)। দ‌লের জন্য জেল খে‌টে‌ছেন প্রায় এক বছর। এরই মধ্যে ব‌ন্দী জীব‌নে হারি‌য়ে‌ছে অ‌নেক কিছু। সু‌খের সংসার তছনছ ক‌রে দি‌য়ে‌ছে ‌বিএন‌পি’র নামক এই শব্দটা। কিন্তু যা‌দের জন্য এ‌তো কিছু তারাও রা‌খে‌নি কোন খবর?

য‌দিও সম‌য়ের কন্ঠস্ব‌রে গত ০৯ এ‌প্রিল অসহায় রিয়াজ‌কে নি‌য়ে সংবাদ প্রকা‌শের পর দ‌লের শীর্ষ স্থান থে‌কে জা‌মি‌নের ব্যবস্থা করা‌তে নি‌র্দেশ দেওয়া হ‌য়। এরপর যা‌দের দা‌য়িত্ব দেওয়া ছিল জা‌মিন করা‌তে, তারাও এ‌ড়ি‌য়ে গে‌ছেন দা‌য়িত্ব থে‌কে। ত‌বে অব‌শে‌ষে রিয়া‌জকে‌ জা‌মি‌নের ব্যবস্থা ক‌রে কথা রে‌খে‌ছেন শরীয়তপু‌র জেলার নড়িয়া উপজেলা যুবদলের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান সাগর।

জানা গে‌ছে, গত বছ‌রের ১৬ সেপ্টেম্বর বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ঢাকা উত্তর মহানগর পল্লবী থানা বিএনপির উদ্যোগে এক‌টি বিক্ষোভ মিছিল করা হয়। উক্ত মিছিল থেকে পল্লবী থানা কতৃক গ্রে'প্তার হন বিএনপির সাংস্কৃতিক সংগঠন জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস) মিরপুর ৬ নং ওয়ার্ড সভাপতি ও মৃ'ত: ওয়াজেদ আলীর ছে‌লে রিয়াজ (৪৩)। প‌রে তাকে পল্লবী থানার বিশেষ ক্ষমতা আইনে ৫৩/৯/১৮ এবং বিস্ফোরক আইনে ৫৪/৯/১৮ দুটি মামলায় গ্রে'প্তার দেখা‌নো হয়। এরপর থে‌কে তার কোন খোঁজ খবর রা‌খে‌নি সংগঠ‌নের কোন নেতাকর্মীরা। য‌দিও প‌রিবা‌রের পক্ষ থে‌কে বি'ষয়‌টি অবগত ক‌রেছি‌লেন দ‌লের শীর্ষ পর্যা‌য়ের নেতাদের।

এ ঘটনার প্রায় ৪ মাস পরে কাশিমপুর কারাগারে রিয়াজের সাথে পরিচয় হয় নড়িয়া উপজেলা যুবদলের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান সাগরের। এরপর অসহায় হ‌য়ে রিয়াজ একবা‌রের জন্য হ‌লেও সার্বিক সহোযোগিতা করে জা‌মিন করা‌নোর জন্য অনু‌রোধ ক‌রেন। গত ২১ মার্চ জামিনে মু্ক্তি পান মতিউর রহমান সাগর। মুক্ত পে‌য়েই ছু‌টে গে‌ছেন বিএন‌পির কে‌ন্দ্রীয় কার্যাল‌য়ে। গত ২১ মার্চ গি‌য়ে কার্যাল‌য়ে দেখা মে‌লে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর সা‌থে। বিস্তা‌রিত শু‌নে ‌রিজ‌ভী জাসাস নেতা রিয়াজকে মুক্ত করার জন্য নি‌র্দেশও দেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সেক্রেটারি আহসান উল্লাহ হাসান কমিশনাকে। কিন্তু ইটপাথ‌রের শহ‌রে কেউ কথা রা‌খে‌নি?

এই ঘটনা নি‌য়ে গত ০৯ এ‌প্রিল এক‌টি সংবাদ প্রকা‌শ হয় জন‌প্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘সম‌য়ের কন্ঠস্ব‌রে। ‘সু‌খের সংসার তচনছ, একবা‌রের জন্য হ‌লেও জা‌মি‌নে মু‌ক্তি চায় বিএন‌পি নেতা রিয়াজ’ ‌শিরোনা‌মে সংবাদ‌টি প্রকা‌শের পর লন্ডনের ব‌সে নজরে আসে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের। তাৎক্ষণিক তার পক্ষ থে‌কে নির্দেশ দেওয়া হয় রিয়াজের জামিনের ব্যবস্থা কর‌তে। কিন্তু কে করা‌বে জামিন? এর ক‌য়েক‌ দি‌নের মাথায় মতিউর রহমান সাগরকে মালয়েশিয়া থেকে তারেক রহমানে সহকা‌রি বেলায়েত না‌মে এক ব্যা‌ক্তি ফোন করে ‌রিয়া‌জকে জা‌মি‌নের ব্যবস্থা করার জন্য। জামিনের সকল খরচ তারাই বহন করবে ব‌লে যোগাযোগ করে ঢাকা মহানগর উত্তর যুবদলের সেক্রেটারি মিল্টন। সি.এম.এম কোটে খরচ বাবৎ কিছু টাকা দেন তারা সাগর‌কে। এরপর থে‌কে বিএন‌পির আর কোন নেতা খবর নেয়নি।

কিন্তু রিয়া‌জকে মুক্ত কর‌তে শেষ পর্যন্ত চেষ্টা ক‌রে সফল হ‌য়েছেন মতিউর রহমান সাগর। বিস্ফোরক আইনের মামলায় সি.এম.এম আদালত জামিন নামঞ্জুর করলে সি.আর মিস করে ঢাকা মহানগর হাকিমের আদালেতে নেওয়া হয় মামলা‌টি। সেখা‌নেও নামঞ্জুর হলে সর্বশেষ গত ২১ জুলাই দুটি মামলায় জামিন দেয় উচ্চ আদালত (হাইকোট)। ৮ আগস্ট কাশিমপুর কারাগার থে‌কে জা‌মি‌নে মু‌ক্তি পায় রিয়াজ।

সদ্য জা‌মি‌নে মু‌ক্তি পাওয়া রিয়া‌জের সা‌থে কথা হয় প্র‌তি‌বেদ‌কের। তি‌নি সময়ের কণ্ঠস্বরকে ব‌লেন, বিএন‌পির ক‌রে জীবনটা তছনছ হ‌য়ে গে‌ছে। জীবন থে‌কে হা‌রি‌য়ে গে‌ছে এক বছর। ব‌ন্দি থাকা অবস্থায় প‌রিবার ছাড়া কেউ কোন খবর রা‌খে‌নি। একপর্যা‌য়ে অসহায় হ‌য়ে প‌রিবারও যোগা‌যোগ বন্ধ ক‌রে দেয়। বিএন‌পির বড় বড় নেতারা আমার বি'ষয়‌টি জান‌লেও এ‌গি‌য়ে যায়‌নি কেউ। ত‌বে আমাকে দেওয়া কথা রে‌খে‌ছেন সাগর ভাই। তার কার‌ণে আর সম‌য়ের কন্ঠস্ব‌রের দা‌য়িত্বশীল প্র‌তি‌বেদ‌নে অব‌শে‌ষে জা‌মি‌নে বের হ‌য়ে‌ছি কারাগার থে‌কে।